ডায়রিয়া হলে করণীয় | ডায়রিয়া রোগের লক্ষণ সমূহ

 ডায়রিয়া আমাদের দেশে খুব সাধারন একটি স্বাস্থ্য সমস্যা। বিভিন্ন ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে ডায়রিয়া হয়। আক্রান্ত ব্যক্তির মল থেকে ডায়রিয়া জীবাণু মাছি, তেলাপোকা এমনকি হাতের মাধ্যমে খাবার ও পানিতে সংক্রমিত হতে পারে। সেই খাবার ও পানির মাধ্যমে ডায়রিয়ার জীবানু অন্য ব্যক্তিদের শরীরে প্রবেশ করতে পারে। দিনে তিনবার এর বেশিও স্বাভাবিকের চেয়ে তরল পায়খানা হলে সেটি কে ডায়রিয়া বলা হয়ে থাকে। বারবার মলত্যাগ করা অর্থাৎ মল ধরে রাখতে না পারাই ডায়রিয়ার সাধারণ বৈশিষ্ট্য।

আজকে আমরা জানতে পারবঃ
ডায়রিয়া হলে করণীয়
ডায়রিয়া রোগের লক্ষণ সমূহ
ডায়রিয়া কেন হয়
ডায়রিয়া রোগ প্রতিরোধে যা করতে হবে
ডায়রিয়া হলে করণীয়
ডায়রিয়া হলে করণীয় | ডায়রিয়া রোগের লক্ষণ সমূহ

ডায়রিয়া কেন হয় ?

ডায়রিয়া সাধারণত হয়ে থাকেঃ

  • দূষিত পানি পান করলে
  • বাসিও পচা খাবার খেলে
  • ডায়রিয়া জীবাণু সংক্রমণের মাধ্যমে
  • অপরিষ্কার ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বসবাস করলে
  • ভ্রমণের সময় বাইরের খোলা খাবার খেলে
  • খাবার ভালোভাবে সেদ্ধ না করে খেলে
  • এবং খাবার আগে হাত পরিষ্কার না করলে।

ডায়রিয়া রোগের লক্ষণ

ডায়রিয়া রোগের লক্ষণ সমুহ হলঃ

  • পানিশূন্যতা
  • তলপেটে প্রচন্ড ব্যথা
  • পেট ফাঁপা বাদ পেটে চাপ অনুভব করা
  • মল নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পারা
  • বমি বমি ভাব বা বমি
  • জ্বর ও হালকা মাথাব্যথা
  • ঘন ঘন পিপাসা পাওয়া
  • স্বাভাবিকের চেয়ে কম প্রস্রাব হওয়া
  • শরীর অতিরিক্ত দুর্বল হয়ে যাওয়া ইত্যাদি

ডায়রিয়া হলে করনীয় কি ?

ডায়রিয়া হলে শরীর থেকে পানি ও লবণ বেরিয়ে যাওয়ায় পানিশূন্যতা ও ইলেকট্রোলাইটের অসমতা দেখা দিতে পারে।সতর্ক না হলে পরিস্থিতি আরো জটিল হতে পারে ডায়রিয়ায় পানিশূন্যতা ও লবণের ঘাটতি পূরণ করাই এর মূল চিকিৎসা অর্থাৎ করনীয়তা।

  1. পানিশূন্যতা পূরণে রোগীকে প্রচুর পরিমাণ তরল খাবার খাওয়াতে হবে
  2. পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে
  3. ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ও পুষ্টিকর খাবার খাওয়াতে হবে
  4. ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৬ বারের বেশি মলত্যাগ করলে এবং মল যদি চালধোয়া পানির মত হয় তাহলে সেটি কলেরার লক্ষণ সে ক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতে হবে।

ডায়রিয়া প্রতিরোধে করনীয় কি ?

ডায়রিয়া প্রতিরোধে স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাপন ও খাদ্যাভ্যাস এর পাশাপাশি আরও যে সকল বিষয়গুলো মাথায় রাখা জরুরি সেসব হলঃ
  • বিশুদ্ধ পানি পান করতে হবে
  • খাবার খাওয়ার আগে ও পরে হাত ভালোমতো ধুয়ে নিতে হবে
  • বাইরের খোলা খাবার এড়িয়ে চলতে হবে
  • রান্না করা খাবার বেশিক্ষণ বাইরে রেখে খাওয়া যাবে না
  • মলত্যাগে সেনেটারী পায়খানা ব্যবহার করতে হবে
  • মমলতাগের পর ভালোভাবে সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে
  • নিজে পরিষ্কার থাকতে হবে এবং আশপাশ পরিষ্কার রাখতে হবে তাহলেই ডায়রিয়া প্রতিরধ করা সম্ভব হবে।
FAQ SECTION
প্রশ্নঃডায়রিয়া হলে করণীয় কি ?
উত্তরঃডায়রিয়া হলে বিশুদ্ধ খাবার পানি পান করতে হবে এবং খাবার স্যালাইন খেতে হবে।বিস্তারিত পোস্টে।

প্রশ্নঃডায়রিয়া রোগের লক্ষণ সমূহ কি কি ?
উত্তরঃডায়রিয়া রোগের প্রথম লক্ষণ পেট ফাঁপা, ঘন ঘন মলত্যাগ ইত্যাদি।বিস্তারিত পোস্টে আলোচনা করা হয়েছে।

প্রশ্নঃডায়রিয়া কেন হয় ?
উত্তরঃডায়রিয়া সাধারণত বাসি খাবার অর্থাৎ অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া থেকে হয়।এই পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url
Post-by: Admin-Sobnews