মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম | তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম,নিয়ত এবং ফজিলত

আসসালামু আলাইকুম। তাহাজ্জুত একটি আরবি শব্দ যার আভিধানিক অর্থ হচ্ছে রাত্রি জাগরন করা এবং আল্লাহর ইবাদতে মগ্ন হওয়া। আজকে আমরা তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম , নিয়ত এবং ফজিলত সম্পর্কে জানব এবং মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম সম্পর্কে জানব ইনশাল্লাহ।

তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত

আমরা অনেকেই তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত নিয়ে নানা দ্বিধা দন্দের মধ্যে পড়ে যাই। কিন্তু আমরা এটা জানিনা যে সহিহ বুখারি শরিফে উল্লেখ আছে যে " প্রকৃতপক্ষে সকল কাজ নিয়তের উপর নির্ভরশীল"। তাই মুখে তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত বলার চেয়ে মনে সংকল্প থাকাটাই বেশি জরুরি। মনে মনে যদি নিয়ত করতে পারি  তাহলেই হবে কারন পরম কুনাময় আল্লাহ তিনি সব কিছুই জানেন।
মাত্র ২ মিনিতে নিজেই জন্ম নিবন্ধন অনলাইণ করুন ঘরে বসে।

তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ

এখন আমরা জানব কিভাবে তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ করে পড়বেন।তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত খুবই সহজ অন্য সকল নামাজের মতই।
তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণঃ 

    "আমি তাহাজ্জুতের ২ রাকায়াত নফল নামাজ আদায় করতেছি কিবলামুখী হয়ে আল্লাহু আকবার"

তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম , নিয়ত এবং ফজিলত মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম

শুরু করার আগে আপনি চাইলে নিচের গুরুত্বপূর্ণ পোস্টগুলো দেখে নিবেন অবশ্যই। আপনি জেনে নিতে পারবেন





তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম

এখন আমরা তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম সম্পর্কে জানব।তাহাজ্জুত নামাজ রাতের অর্ধভাগে পড়া উত্তম। তবে যদি ফরজ নামজা শেষে ঘুমিয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকে তবে চাইলে ইশার নামাজ শেষ করেও নামাজ পড়া যাবে ইনশাআল্লাহ।
  • দুই  রাকাত দুই রাকাত করে যথা সম্ভব লম্বা কিরাত , লম্বা রুকু ও সেজদা সহকারে একান্ত নিবিষ্ট মনে পড়া উত্তম।
  • আস্তে বা জোরে উভয়ভাবেই নামাজ আদায় করা যাবে। তবে তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম অনুযায়ী আস্তে পড়াই উত্তম।
  • পবিত্র রমাদান মাস ছাড়া মাঝে মাঝে জামায়াতে পড়ার বিধান আছে।  
  • ২ রাকাত করে ৮ রাকাত নামাজ পড়ার বিধান আছে। আর তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম এর মধ্যে আর একটি বিষয় হল বেতের নামাজ এটি আপনি চাইলে পরেও পড়তে পারেন আর ঘুমানোর সম্ভাবনা থাকলে পড়ে নিতে পারবেন।
জানুন তারাবি নামাজের সঠিক নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত ।আসা করি তারাবি নামাজ নিয়ে সব ভহুল ধারনা পরিস্কার হয়ে যাবে।

মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম

তাহাজ্জুত  নামাজের নিয়ম বা তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত নিয়ে নানান প্রশ্ন অনেকেই করে থাকেন। এসবের মধ্যে আর একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন হচ্ছে মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম।তাই এই সেকশনে আমরা মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ।

জেনে নিন গোসলের ফরজ ও সুন্নত কি কি 


তাহাজ্জুদ  নামাজ পুরুষ ও মহিলা সকল মুমিন বান্দা- বান্দির জন্যই। আল্লাহ তায়ালা পুরুষ মহিলা সবাইকে তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন। পুরুষ ও মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম এর মধ্যেে কোন পার্থক্য নেই।
  • নিয়ত করে তাকবিরে তাহরিমা বেধে ছানা পড়তে হবে।
  • যেকোনো সুরা মিলিয়ে পড়তে হবে সুরাতুল ফাতিহার সাথে। এক্ষেত্রে লম্বা কেরাত পড়া উত্তম। মহানবি (সাঃ) এত লম্বা কেরাত পরতেন যে তাঁর পা দুইটা ফুলে যেত। সুবহানআল্লাহ। আপনি যদি দুয়া মাসুরা, তাসাহুদ , দুয়া কুনুত না জানেন তবে পড়ে নিতে পারেন।
  • ইচ্ছা অনুযায়ী ২ রাকায়াত করে ৪ ,৮,১২ রাকাত পড়া যায়।
এতক্ষন আমরা জানলাম মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম সম্বন্ধে। আপনারা কি জানেন মহিলাদের তারাবির নামজের নিয়ম সম্পর্কে ? যদি না জেনে থাকেন সঠিক নিয়মে কিভাবে মহিলাদের তারাবির নামাজ আদায় করবেন জানুন।

তাহাজ্জুত নামাজের ফজিলত

আমরা এখন  জানব তাহাজ্জুত নামাজের ফজিলত সম্পর্কে বিস্তারিত ইনশাআল্লাহ। সাথেই থাকুন 
  • নবি করিম (সাঃ) বলেন 
ফরজ নামাজের পর সব নফল নামাজের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হলো তাহাজ্জুদ নামাজ তথা রাতের নামাজ।’ 
                    (মুসলিম, তিরমিজি, নাসাঈ)
  • মহান আল্লাহ পবিত্র কুরানের সুরা মুজাম্মিল এর মধ্যে এই তাহাজ্জুত নামাজের ফজিলত এর কথা উল্লেখ করেছেন।
তিনি বলেনঃ
হে বস্ত্রাবৃত্ত! (অর্থাৎ মুহাম্মদুর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলইহি ওয়াসাল্লাম) রাতে দণ্ডায়মান হোন কিছু অংশ বাদ দিয়ে অর্ধরাত অথবা তা থেকেও কিছু কম অথবা তদপেক্ষা বেশী কুরআন খুব থেমে থেমে পাঠ করুন। নিশ্চয় আমি (আল্লাহ্) অনতিবিলম্বে আপনার উপর একটা গুরুভার বাণী অবতীর্ণ করবো। নিশ্চয় (এবাদতের উদ্দেশ্যে) রাত্রিতে উঠা, তা অধিক চাপ সৃষ্টি এবং বাণী খুব সরলভাবে বহির্গত হয়।
  • এছারাও এক শ্রেনির মানুষ বিনা হিসাবে জান্নাতে জাবেন শুধুমাত্র তাঁর রাতের ইবাদতের মাধ্যমে অর্থাৎ এখানে তাহাজ্জুত নামজের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। 
আপনি কি জানেন আপনার ফিতরা দেওয়াসথিক হচ্ছে কিনা ? জানুন ফিতরা কাকে দিবেন 

তাহাজ্জুদ নামাজ সুন্নত নাকি নফল 

তাহাজ্জুদ নামাজ সুন্নত নাকি নফল এটি নিয়েও আমাদের মাঝে জানার আগ্রহ কম নয় । বিশেষ করে নিয়ত করার সময় মনে পড়ে এটি সুন্নত নাকি নফল। তাই এখানে বিস্তারিত আলোচনা করব তাহাজ্জুদ নামাজ সুন্নত নাকি নফল এই সম্পর্কে।
যদি কেও প্রতিদিন এই নামাজ পড়তে চান এবং আল্লহর কাছে প্রার্থনা করেন যে বড় কোন বালা মুসিবত ছাড়া মৃত্যুর আগে পর্যন্ত কখনো এই তাহাজ্জুত নামাজ ছেতে দিবেন না তবে এটি আপনার জন্য সুন্নত।অন্যথায় এটি নফল সকলের জন্য। 
আমরা খুবই সুন্দরভাবে মহিলাদের তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম এবং তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ম, তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত এবং ফজিলত সম্পর্কে  আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। আসা করি আপনাদের উপকার হবে।

FAQ Section

১। তাহাজ্জুত নামাজ কত রাকাত?
উত্তরঃ দুই  রাকাত দুই রাকাত করে যথা সম্ভব লম্বা কিরাত , লম্বা রুকু ও সেজদা সহকারে একান্ত নিবিষ্ট মনে ৪ রাকাত, ৮ রাকাত, ১২ রাকাত পড়া যায়।

২। তাহাজ্জুদ নামাজ সুন্নত নাকি নফল ?
উত্তরঃ যদি কেও প্রতিদিন এই নামাজ পড়তে চান এবং আল্লহর কাছে প্রার্থনা করেন যে বড় কোন বালা মুসিবত ছাড়া মৃত্যুর আগে পর্যন্ত কখনো এই তাহাজ্জুত নামাজ ছেতে দিবেন না তবে এটি আপনার জন্য সুন্নত।অন্যথায় এটি নফল সকলের জন্য।

৩। তাহাজ্জুত নামাজের সঠিক সময় কখন ?
উত্তরঃ মধ্যরাতের পরে বা রাতের দুই-তৃতীয়াংশ অতিবাহিত হলে তাহাজ্জুদ নামাজের ওয়াক্ত শুরু হয়। রাত দুইটার পর থেকে ফজরের নামাজের ওয়াক্ত আরম্ভ হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত তাহাজ্জুদের ওয়াক্ত। ফজরের ওয়াক্ত শুরু হলে তাহাজ্জুদের ওয়াক্ত শেষ হয়। তবে কেও চাইলে রাতের ইশার নামাজের পরও পড়তে পারবে যদি ঘুমানোর সম্ভাবনা থাকে।

৪। তাহাজ্জুত নামাজের নিয়ত কি?
উত্তরঃ আমি তাহাজ্জুতের ২ রাকায়াত নফল নামাজ আদায় করতেছি কিবলামুখী হয়ে আল্লাহু আকবার ।


ইসলামিক পোস্ট পড়তে আমাদের ওয়েবসাইট www.sobnews.xyz বেছে নেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। এখানে ইসলামিক নানা বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা আছে।চাইলে ঘুরে আস্তে পারেন।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url
Post-by: Admin-Sobnews