ফিতরা কত টাকা ২০২২ | ফিতরা কাকে দেওয়া যাবে | ফিতরা কিভাবে আদায় করবেন

সর্বনিম্ন ৭৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ ২৩১০ টাকা হারে এবারের ফিতরা নিরধারন করা হয়েছে। তার আগে আসুন জেনে নিই ফিতরা কি ?  ফিতরা একটি আরবি শব্দ যার অর্থ হচ্ছে দান করা।ইসলামে এটি সদকাতুল ফিতর নামে পরিচিত। আজকে আমরা সদকাতুল ফিতরা , ফিতরা কত টাকা ২০২২ , ফিতরা কাকে দেওয়া যাবে ,ফিতরা কিভাবে আদায় করবেন এসব নিয়ে আলোচনা করব। আমাদের মাঝে বেশ কিছু প্রশ্ন ঘুরে বেড়ায় যেমন ফিতরা অর্থ কি , সদকাতুল ফিতরার বিধান , ফিতরার পরিমান কত , ফিতরা কাকে দেওয়া যাবে , ফিতরা কখন দিতে হবে , ফিতরা কিভাবে আদায় করবেন এইসমস্ত বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করার চেষ্টা করব।



ফিতরা কত টাকা ২০২২ | ফিতরা কাকে দেওয়া যাবে | ফিতরা কিভাবে আদায় করবেন

ফিতরা অর্থ কি | ফেতরা কি 

ফিতরা একটি আরবি শব্দ । তাহলে ফিতরা কি ? ফিতরা বলতে রোজাদার বেক্তি ঈদুল ফিতর উপলক্ষে গরিব দুঃখীদের মাঝে যে অর্থ দান করে তাকেই আমরা সদকাতুল ফিতর বা ফিতরা বলি। এই অর্থ গরিব দুঃখীদের হক। তাদের হক পুরন করা প্রত্যেক রুজাদার বেক্তির জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ইদ সবার জন্য আনন্দ বয়ে আনে। তাদের ইদকে আমরা আনন্দঘন করতে পারি আমাদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে। আমাদের প্রিয় নবি হযরত মোহাম্মাদ (সাঃ) ফিতরা ফরজ করেছেন ।

সদকাতুল ফিতরার বিধান 

সদকাতুল ফিতর হল ১ মাস সিয়াম সাধনার পর যদি কোন ভুল ত্রুতি হয় তা থেকে মুক্তি পাওয়ার একটি উপায়। ইদের দিন সকাল বেলা যে নির্ধারিত সদকা আদায় করা হয় তাই হল সদকাতুল ফিতর।এই সদকাতুল ফিতরার বিধান হল ইদের নামাজের আগেই ফিতরার হক আদায় করা তবে যদি কেও অক্ষম হয় তবে পরেও আদায় করা যাবে । 

ফিতরা কাকে দেওয়া যাবে । ফিতরা কত টাকা 



সহিহ বুখারি(বুখারি, খণ্ড: ১, পৃষ্ঠা: ২০৪,২০৫) অনুযায়ী, 
আবু সাঈদ খুদরি (রা.) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন , মহানবি হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর সময় আমরা এক ছা পরিমান সদকা দিতাম। সদকাতুল ফিতরার বিধান অনুযায়ী এক ছা পরিমান প্রায় সাড়ে তিন কেজি । তিনি আরো বলেন তখন আমাদের খাদ্য ছিল: যব, কিশমিশ, পনির ও খেজুর।সদকাতুল ফিতরা আদায় করতাম এক ছা পরিমান  খাদ্যবস্তু বা এক ছা  যব বা  এক ছা  খেজুর বা  এক ছা  পনির অথবা এক ছা  কিশমিশ।

সাহাবা (রাঃ) রা খেজুর দিয়েই সদকাতুল ফিতরা আদায় করতেন। আর খেজুর দিয়ে করাই উত্তম। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন , তা-ই উত্তম, দাতার কাছে যা সর্বোৎকৃষ্ট এবং যার মূল্যমান সবচেয়ে বেশি।তাই বেশি মূল্যের খেজুর বা চাল দিয়ে সদকাতুল ফিতরা আদায় করা উচিত বা  এঁর সমপরিমান অর্থ দিয়ে যা গরিব দুঃখীদের জন্য বেশি উপকার হয়।

ফিতরা কাকে দেওয়া যাবে | ফিতরা কখন দিতে হবে

ফিতরা দেওয়া ওয়াজিব।অর্থাৎ পালন করা জরুরি। যেসমস্ত দরিদ্র মানুষ জাকাত পাওয়ার উপযুক্ত তারা  সদকাতুল ফিতরারও উপযুক্ত।অতএব সমাজের নিম্নশ্রেনির মানুষ, দরিদ্র আত্মীয় স্বজন এই  ফিতরা পাউয়ার উপযোগী।


ফিতরা কত টাকা ২০২২ | ফিতরা কত টাকা 

ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক ফিতরার টাকা নির্ধারণ করা হয়। প্রতি বছরের ন্যায় এবার ও 9 এপ্রিল 2022  সকাল 11 টায় বায়তুল মোকাররমে ফিতরার পরিমান ঘোষণা হয়। তাই সেই হিসাবে আমাদের ফিতরা আদায় করতে হবে। নিয়ম অনুযায়ী ফিতরা আদায় করতে হবে । কারন এটি গরিব অসহায়দের হক ।

ফিতরার পরিমান কত ২০২২

এবছর ফিতরার টাকা ইসলামিক ফাউন্ডেশন অনুযায়ী  সর্বনিম্ন ৭৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ ২৩১০ টাকা নিরধারন করা হয়েছে।ফিতরা যদি কোন মুমিন বান্দার ওপর ফরজ হয়ে থাকে তবে তার উচিত এই নির্দিষ্ট হারে সদকাতুল ফিতরা আদায় করা। আর এটি অবশ্যই পালন করতে হবে।

ফিতরা কাদের দেওয়া যাবে

নিজ পরিবার-পরিজনের মধ্য যারা গরিব-অসহায়, ফিতরার হকদার তারাই আগে। আর একজনকে ন্যূনতম পূর্ণ একটি ফিতরা দেয়া উত্তম। প্রয়োজনের প্রেক্ষিতে কয়েক জনের ফিতরাও একজনকে দেয়া যেতে পারে। এতে গরিব-অসহায় ব্যক্তির উপকার হয়। ওয়াজিব হলে নবজাতকের ফিতরার টাকাও বাবাকে পরিশোধ জকরতে হবে।

আমরা আরও কিছু জরুরি বিষয় সম্পর্কে জানতে পারি ।জেমনঃ






Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url
Post-by: Admin-Sobnews